প্রাচীন মাস্তা মসজিদ | গোবিন্দগঞ্জ

0
625
Prachin Masta Mosque

সংক্ষিপ্ত বিবরনঃ

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সদর হতে প্রায় ০৩ কি.মি. দক্ষিণে এবং কামারদহ ইউনিয়নের ফাঁসিতলা বাজার হতে ০১ কি.মি. উত্তরে মহাসড়কের পশ্চিম পার্শ্বে মাস্তা মসজিদ( Prachin Masta Mosque ) অবস্থিত । যে কোন যানবাহন ব্যবহার করে মাস্তা মসজিদে যাওয়া যায় ।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় পুরাতন মসজিদ গুলোর মধ্যে  প্রাচীন মাস্তা মসজিদ স্থাপত্যের  অপর একটি নিদর্শন । কামারদহ ইউনিয়নের  মাস্তা গ্রামের প্রাচীন লাল মসজিদটিই ‘মাস্তা  মসজিদ’ নামে পরিচিত । মসজিদ এলাকার জনশ্রুতি মতে এককালে এ এলাকায় বাদশা ফকির নামে একজন  প্রভাবশালী  ও ধর্মপরায়ন ব্যক্তির বাস ছিল । তিনি এ মসজিদটি প্রতিষ্ঠা করেন । তাঁর ও তাঁর উত্তারসুরীর  আসল পরিচয় আজও মেলেনি । প্রকৃতপক্ষে মসজিদটি  কোন সময়  নির্মিত হয়েছে তা কোন সূত্র থেকেই আজও জানা যায়নি । তবে মসজিদের নির্মাণ কৌশল ও মোঘল আমলের মসজিদ স্থাপত্যের বৈশিষ্ঠ্যের সূত্র  ধরে অনুমান করা যায় মাস্তা মসজিদটি  মোঘল আমলের  কোন  এক সময় নির্মিত হয়েছিল ।

মসজিদটির দৈর্ঘ্য ৩৫ ফুট এবং প্রস্ত ১৬ ফুট । চার কোণে চারটি স্তম্ভ রয়েছে । একই আকারের তিনটি গম্বুজ  আছে । দরজা তিনটি । কোন জানালা নেই । ভিতরে দুই সারিতে নামাজ আদায় হয়ে থাকে ।

কিভাবে যাবেনঃ

গাইবান্ধা হতে গোবিন্দগঞ্জ সেখান থেকে কামারদহ ইউনিয়নের ফাঁসিতলা বাজার থেকে প্রায় এক কিলোমিটার. উত্তরে মহাসড়কের পশ্চিম পার্শ্বে মাস্তা মসজিদ অবস্থিত। যে কোনো যানবাহন ব্যবহার করে মাস্তা মসজিদে যেতে পারেন। সবচেয়ে সহজে যেতে চাইলে সিএনজিতে যেতে পারেন।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে বা এই বিষয়ে কোন কিছু জানানোর থাকলে নীচের মন্তব্য বিভাগে লিখতে ভুলবেন না । আপনার ভ্রমণ পিয়াশি বন্ধুদের সাথে নিবন্ধটি শেয়ার করে নিন যাতে তারাও জানতে পারে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here