তাড়াশ রাজবাড়ী | পাবনা

0
606
Tarash Rajbari

তাড়াশ রাজবাড়ী সম্পর্কে কিছু তথ্যঃ তাড়াশ ভবন বা তাড়াশ রাজবাড়ী ( Tarash Rajbari ) পাবনা জেলা সদরে অবস্থিত বাংলাদেশের একটি অন্যতম প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা।ভবনটি তৈরি করা হয়েছিল ১৮শ শতকের কোন এক সময়। ব্রিটিশ শাসনামলে তাড়াশ রাজবাড়ীটি নির্মাণ করেন তাড়াশের তৎকালীন জমিদার রায়বাহাদুর বনমালী রায়। স্থাপত্যের দিক দিয়ে এটির সাথে ইউরোপীয় রেনেসাঁ রীতির সঙ্গে মিল পাওয়া যায়। ৮ই জানুয়ারি ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ সরকারের প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এটিকে সংরক্ষিত প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা হিসেবে তালিকাভুক্ত করে। প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এটিকে সংরক্ষিত ঘোষণার পূর্বে ভবনটি বিভিন্ন সরকারি দপ্তর হিসেবে ও পাবনা মেডিকেল কলেজের ভবন হিসেবেও ব্যবহৃত হয়েছে কিছুদিন।

জনশ্রুতি অনুসারে, রায়বাহাদুর জমিদারের বংশধরগণ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ১৯৪২ সালে এই ভবনটি তাদের আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবেও ব্যবহার 

দেয়ালে বিভিন্ন নকশা করা এই ভবনের সামনে রয়েছে একটি বড় প্রবেশপথ। প্রবেশপথের দুপাশে রয়েছে ২টি করে বড় স্তম্ভ ও এর মাঝখানেই রয়েছে প্রবেশপথ। বর্তমানে যদিও এর নকশা অনেকটাই বিলীন হয়ে গিয়েছে। মূল ভবনটির দৈর্ঘ্যে ৩০.৪০ মিটার (১০০ ফুট) এবং প্রস্থ ১৮.২৮ মিটার (৬০ ফুট)।

কিভাবে যাবেনঃ ঢাকা থেকে পাবনাগামী বাসে পাবনা পুরাতন বাসস্টান্ড। তারপর অটোতে করে বা হেটেই যাওয়া যাবে এই রাজবাড়ী।
কোথায় খাবেনঃ পাবনা শহরে অনেক ধরণের হোটেল আছে সেখান থেকে খেয়ে নিতে পারেন।
কোথায় থাকবেনঃ বাস স্ট্যান্ডের কাছেই মানসম্মত হোটেল আছে আপনি থাকতে পারেন ভাড়া ২০০ থেকে ১০০০ টাকা।

ঢাকা থেকে পাবনা কয়েকভাবে যেতে পারবেনঃ নৌপথে এবং সড়ক পথে।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে বা এই বিষয়ে কোন কিছু জানানোর থাকলে নীচের মন্তব্য বিভাগে লিখতে ভুলবেন না । আপনার ভ্রমণ পিয়াশি বন্ধুদের সাথে নিবন্ধটি শেয়ার করে নিন যাতে তারাও জানতে পারে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here