মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট | সাতক্ষীরা

0
339
Mozaffar Garden & Resort

সংক্ষিপ্ত বিবরনঃ

মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট( Mozaffar Garden & Resort )সাতক্ষীরা শহরের জিরোপয়েন্ট হতে মাত্র ৪ কিলোমিটার দূরে খড়িবিলা নামক স্থানে মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে অবস্থিত সাতক্ষীরা মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট। এটি স্থানীয়ভাবে মন্টু সাহেবের বাগান বাড়ী নামেও পরিচিত।

যা যা দেখবেনঃ

রিসোর্টটির অভ্যন্তরে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ, ফুল-ফল ও পশু-পাখির সমারোহ রয়েছে। বাগানের চারিদিকে অত্যন্ত দর্শনীয়ভাবে লাগানো হয়েছে আম, নারিকেল ও মেহগনি গাছ। এছাড়াও সমগ্র উদ্যান জুড়ে লাগানো হয়েছে লিচু, আপেল, কমলা, ছবেদা, পেয়ারা, পাম গাছ, কুল সহ বিভিন্ন প্রকারের কয়েক হাজার গাছ। রিসোর্টটি বিভিন্ন জাতের হাজারো ফুল গাছ দিয়ে মনোরমভাবে সুসজ্জিত করা হয়েছে । উদ্যানের অভ্যন্তরে রয়েছে বৃহদাকার ০৮টি হ্রদ, একটি প্রাকৃতিক সাঁতার কাটার পুল ও দুটি বৃহদাকার মাছের এ্যাকুরিয়াম। এ্যাকুরিয়াম সমূহে নানান রঙের বিভিন্ন বিদেশী মাছ শোভা পাচ্ছে। হ্রদ সমূহে মাছ চাষ করা হয়। দর্শনার্থীদের জন্য চমকপ্রদ একটি বিষয় হচ্ছে হ্রদে বড় বড় মাছ কর্তক ফিডার খাওয়া। পায়ে হাটার জন্য সুন্দর ঢালাই করা সাজানো-গোছানো পথ ও বসার জন্য সমগ্র গার্ডেন জুড়ে তৈরি করা হয়েছে টাইলস বাধানো বেঞ্চ। রাতে চলার জন্য সমগ্র গার্ডেন জুড়ে বিভিন্ন নকশা ও রঙের বৈদ্যূতিক বাতি বসানো হয়েছে। যা রাতে গার্ডেনের চেহারাকে পরিবর্তন করে এক অন্য জগতের সৃষ্টি করে। এখানে যে সকল দর্শনার্থীরা আসেন তারা দিন ও রাতের উভয় সৌন্দর্যই উপভোগ করার জন্য চেষ্টা করেন। সমগ্র মোজাফফর গার্ডেন ও রিসোর্ট জুড়ে তৈরি করা হয়েছে হাতি, বাঘ, হরিন, জিরাফ, কুমির, পাখি, সাপ সহ নানা প্রাণীর ভাষ্কর্য।

রিসোর্টে রয়েছে একটি ছোট চিড়িয়াখানা। যা ইতিমধ্যে দর্শনার্থী ও প্রাণী পিপাষূ মানুষদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। এই মিনি চিড়িয়াখানায় হরিন, কুমির, সজারু, ময়ূর সহ বিভিন্ন প্রকারের পশু ও পাখি আছে।

কিভাবে যাবেনঃ

মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট সাতক্ষীরা শহর থেকে মাত্র ৪.৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। সাতক্ষীরা শহর থেকে বাস অথবা সিএনজি অটোরিকশায় করে রিসোর্টে পৌছাতে পারবেন।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে বা এই বিষয়ে কোন কিছু জানানোর থাকলে নীচের মন্তব্য বিভাগে লিখতে ভুলবেন না । আপনার ভ্রমণ পিয়াশি বন্ধুদের সাথে নিবন্ধটি শেয়ার করে নিন যাতে তারাও জানতে পারে ।