নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট | গাজীপুর

0
365
Nokkhottrobari Resort

সংক্ষিপ্ত বিবরনঃ

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ি এলাকায় ‘নক্ষত্রবাড়ি’( Nokkhottrobari Resort ) নামে আধুনিক এ রিসোর্ট ও কনফারেন্স সেন্টারের অবস্থান। সবুজ স্থাপত্য আর প্রাকৃতিক স্থাপত্যপদ্ধতির সমন্বয়ে এই নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট অ্যান্ড কনফারেন্স সেন্টার।

এখানে এসে একসঙ্গে চোখে পড়েছে অনেক কিছু। ভেতরে ঢুকতেই ডানে রিসেপশন, নাক বরাবর পুকুর, তার পাশে বেশ কয়েকটি সাজানো বাংলো। বাঁয়ে বিশাল তেতলা বাড়ি আর গাছের সারি। সব মিলিয়ে ছোট্ট জায়গায়, একের মধ্যে বহুর সম্মিলন ঘটানো হয়েছে।

রিসেপশনের বৈশিষ্ট্য হলো এর গঠন। আমাদের চিরাচরিত বাংলা স্থাপত্যপদ্ধতি মান্য হয়েছে এখানে। লাল টালি দিয়ে ছাওয়া চালাঘর। কাঠ-বাঁশ-বেতের ব্যবহার চমৎকার। রিসেপশন থেকে বামে তাকালে বিশাল তেতলা বাড়ি। সাদামাটা দেখতে এই বাড়িটা আসলে হোটেল কমপ্লেক্স। মোট আঠারোটি রুম। বাইরে থেকে মনে হয় সাধারণ। অথচ রুমগুলোয় রয়েছে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা। ভেতর আর বাইরের এই কন্ট্রাস্ট বেশ লাগে।

হোটেল কমপ্লেক্স থেকে এগিয়ে খানিকটা উঁচু জায়গায় ফ্যামিলি কটেজের অবস্থান। দুটি বেডরুম, একটা বাচ্চাদের রুম, একটা ড্রয়িং, একটা ডাইনিং আর বারান্দা নিয়ে। সামনে বড়সড় একটা লন। ফ্যামিলি কটেজটাও চালার রীতি মেনেই তৈরি। তবে ইট-সিমেন্টের। যেতে যেতে চোখে পড়লো মাটির বেশ বড় গামলা, যার মধ্যে ফুটে আছে শাপলা। উঁচু জায়গাতেই ছোট্ট একটা সুইমিং পুল। এখানে আঁকা আছে সূর্যমুখী। নক্ষত্রবাড়ির সিগনেচার সিম্বল। আশপাশে বাঁশঝাড় আর গাছপালা। অতীত থেকে আপনাকে বর্তমানে নিয়ে আসবে কফি শপ আর বিশাল কনফারেন্স সেন্টার। চাইলে সুইমিং পুলের পাশে তাঁবুতেও রাত্রিযাপন করতে পারেন। আছে সুব্যবস্থা।

কিভাবে যাবেনঃ

গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে সোজা আপনাকে ময়মনসিংহের দিকে যেতে হবে। রাজেন্দ্রপুরের চৌরাস্তায় এসে আপনাকে রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাস অভিমুখে ডান দিকে যেতে হবে। এখান থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে বেইলি ব্রিজ অতিক্রম করে রাজাবাড়ি বাজারে পৌছাতে হবে। রাজাবাড়ি বাজারের অগ্রণী ব্যাঙ্ক থেকে ডানে মোড় নিয়ে প্রায় ১.৫ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করলেই পৌঁছে যাবেন নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট এন্ড কনফারেন্স সেন্টারে।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে বা এই বিষয়ে কোন কিছু জানানোর থাকলে নীচের মন্তব্য বিভাগে লিখতে ভুলবেন না । আপনার ভ্রমণ পিয়াশি বন্ধুদের সাথে নিবন্ধটি শেয়ার করে নিন যাতে তারাও জানতে পারে ।